বৃহস্পতিবার, 22 সেপ্টেম্বর 2016 15:34

সবজির বীজ রফতানিতে ২০ শতাংশ ভর্তুকি

পাঠকাঠি থেকে উত্পাদিত কার্বন রফতানিতেও প্রণোদনা

দৈনিক ইত্তেফাক || বাংলাদেশে উত্পাদিত শস্য ও শাক সবজির বীজ রফতানির ক্ষেত্রে রফতানি মূল্যের ওপর ২০ শতাংশ হারে ভর্তুকি পাবেন রফতানিকারকরা। এ ছাড়া পাটকাঠি থেকে উত্পাদিত কার্বন রফতানির বিপরীতে ২০ শতাংশ হারে ভর্তুকি সুবিধা পাবেন উদ্যোক্তারা। গতকাল বুধবার বাংলাদেশ ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রা লেনদেনে নিয়োজিত বিভাগ এ সংক্রান্ত পৃথক দুটি প্রজ্ঞাপন জারি করে। প্রজ্ঞাপন অনুমোদিত ডিলার ব্যাংকগুলোর প্রধান নির্বাহীর কাছে পাঠানো হয়েছে।

প্রজ্ঞাপনে আরো বলা হয়, রফতানিকৃত পণ্যের হ্যান্ডেলিং, মানোন্নয়ন, প্রক্রিয়াজাতকরণে নির্বাহকৃত ব্যয় এবং অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক পরিবহন এবং ফ্রেইট চার্জ পরিশোধজনিত ব্যয়ের বিপরীতে ডব্লিউটিও বিধি অনুযায়ী আলোচ্য ভর্তুকি দেওয়া হবে। এতে আরো বলা হয়, টিটির মাধ্যমে অগ্রিম মূল্য পরিশোধ সরাসরি ব্যাংকিং চ্যানেলের মাধ্যমে (এক্সচেঞ্জ হাউস ব্যতীত) রফতানি আদেশ প্রদানকারী বা আমদানিকারক কর্তৃক সম্পন্ন হতে হবে এবং টিটি বার্তার ভাষ্যে আমদানি সংশ্লিষ্ট তথ্যসূত্র উল্লেখ থাকতে হবে। সকল ক্ষেত্রে ভর্তুকির আবেদনপত্র বিদেশে সংশ্লিষ্ট ব্যাংকের নষ্ট্রো হিসাবে রফতানি মূল্য (রফতানি মূল্য প্রত্যাবাসনের) তারিখের ১৮০ দিনের মধ্যে সংশ্লিষ্ট অনুমোদিত ডিলার ব্যাংক শাখায় দাখিল করতে হবে। রফতানির সপক্ষে প্রয়োজনীয় দলিলাদি যেমন জাহাজীকরণের প্রমাণস্বরূপ বিল অব লেডিং/এয়ারওয়ে বিল, কমার্শিয়াল ইনভয়েস, প্যাকিং লিস্ট, শুল্ক কর্তৃপক্ষ কর্তৃক ইস্যুকৃত বিল অব এক্সপোর্ট অনুমোদিত ডিলার ব্যাংক শাখা কর্তৃক আবেদনপত্র গ্রহণ, পরীক্ষণ ও পরিশোধ নিষ্পত্তি করতে হবে।

এতে আরো বলা হয়, রফতানি ভর্তুকির আবেদন ফরমের বিভিন্ন অনুচ্ছেদে যে সকল কাগজপত্র, সনদপত্র, প্রত্যয়নপত্রের উল্লেখ আছে ঐগুলো সম্পূর্ণ ও পূর্ণাঙ্গ আকারে আবেদনের সাথে যুক্ত থাকার বিষয়ে অনুমোদিত ডিলার ব্যাংক প্রাথমিক পরীক্ষণে নিশ্চিত হবে। প্রাথমিক পরীক্ষণে পরিলক্ষিত ত্রুটির/অসম্পূর্ণতার (যদি থাকে) বিষয়ে অনুমোদিত ডিলার ব্যাংক শাখা আবেদনপত্র প্রাপ্তির তিন কার্যদিবসের মধ্যে লিখিতভাবে আবেদনকারী প্রতিষ্ঠানকে অবহিত করবে। এ ছাড়া শস্য ও শাক-সবজি রফতানির ক্ষেত্রে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উদ্ভিদ সংগনিরোধ উইং থেকে গৃহীত ‘ফাইটোসেনেটারি সার্টিফিকেট’ বাধ্যতামূলকভাবে দাখিল করতে হবে। আর যে সকল ডকুমেন্ট ব্যাংক শাখা কর্তৃক প্রক্রিয়াকৃত হয় সেগুলোর যথার্থতা ও সেগুলোতে উল্লিখিত তথ্যাদির শুদ্ধতার বিষয়েও সংশ্লিষ্ট ব্যাংক শাখা নিশ্চিত হওয়ার কথা বলা হয়েছে।

এই ক্যাটেগরিতে অন্তর্ভুক্ত: « ধান পেকেছে, কাটার শ্রমিক নেই