বুধবার, 25 সেপ্টেম্বর 2013 13:05

দীঘিনালায় ভূমি দখলের চেষ্টার প্রতিবাদে বিক্ষোভ

প্রথম আলো || খাগড়াছড়ির দীঘিনালা উপজেলায় ভূমি দখলের চেষ্টার প্রতিবাদে আদিবাসীরা বিক্ষোভ-মিছিল ও প্রতিবাদ-সমাবেশ করেছে।
গতকাল মঙ্গলবার গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের ব্যানারে ভূমির দাবিদার ৪৭টি পরিবারের সদস্য এবং বিদ্যালয় ও কলেজের আদিবাসী শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ-মিছিল ও সমাবেশে অংশ নেয়। মিছিলটি উপজেলার বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে দীঘিনালা ডিগ্রি কলেজ মোড়ে গিয়ে শেষ হয়।
এ সময় গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের উপজেলা আহ্বায়ক সুজন চাকমার সভাপতিত্বে এক সংক্ষিপ্ত সমাবেশে বক্তব্য দেন পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের উপজেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক জহেল চাকমা, পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ (এম এন লারমা) পক্ষের কলেজ শাখার সভাপতি আলো বিকাশ চাকমা, পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ (ইউপিডিএফ) সমর্থিত কলেজ শাখার সভাপতি রুপেশ চাকমা, ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোর পক্ষে পূর্ণ চন্দ্র চাকমা প্রমুখ।
সমাবেশে বক্তারা অভিযোগ করেন, ৪ নম্বর দীঘিনালা ইউনিয়নের ২ নম্বর বাঘাইছড়ি এলাকায় বাংলাদেশ বর্ডার গার্ডের (বিজিবি) সদর দপ্তর হলে ৫১ নম্বর বাঘাইছড়ি মৌজার শশী মোহন কার্বারিপাড়ার ২৪ পরিবার, নূতন চন্দ্র কার্বারিপাড়ার ২৩ পরিবারসহ মোট ৪৭ পরিবার তাদের ভূমি হারাবে।
এ প্রসঙ্গে দীঘিনালা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ফজলুল জাহিদ পাভেল বলেন, বিজিবি সদর দপ্তর স্থাপনের জন্য ভূমি অধিগ্রহণের প্রাথমিক প্রশাসনিক কার্যক্রম ও পদক্ষেপ শুরু হয়েছে মাত্র। কাউকে জোরপূর্বক ভূমি থেকে উচ্ছেদ করা হবে না। যথাযথ ক্ষতিপূরণ দিয়েই ভূমি অধিগ্রহণ করা হবে।
ফজলুল জাহিদ পাভেল আরও বলেন, ‘আমি গত সোমবার ওই এলাকা পরিদর্শন করেছি। কিন্তু, কেউ আমাকে এমন অভিযোগ করেনি। যা করা হবে, ভূমির মালিকদের সঙ্গে আলোচনা করেই করা হবে।’