মঙ্গলবার, 02 অগাস্ট 2016 15:20

কাহারোলে পাটের বাম্পার ফলন হওয়ায় কৃষক খুশি

দৈনিক ইত্তেফাক || অনুকূল আবহাওয়া, সার ও ভালো বীজের সহজলভ্যতায় উপজেলার ৬টি ইউনিয়নে এবার পাটের বাম্পার ফলন হয়েছে। আর দাম ভালো থাকায় কৃষকের এখন মুখে হাসি। বর্তমানে পাটজাত পণ্যের চাহিদা বাড়ায় উত্পাদন লক্ষ্যমাত্রা বেড়ে দাঁড়িয়েছে দেড় গুণ। এর মধ্যে উপজেলার সোনালী আঁশ পাট অহরণ শুরু হয়ে গেছে। চলতি মৌসুমে পাটের বাম্পার ফলনে লাভের আশা করছেন চাষিরা। অন্যান্য বছরের তুলনায় এবার যথাসময়ে খরা ও ভালো বৃষ্টিপাত, ভাল বীজের সহজলভ্যতা ও সার সংকট না থাকায় চলতি বছর পাটের উত্পাদন পূরণ হয়েছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। এছাড়া ভালো বৃষ্টিপাতের কারণে পাট জাগ দেওয়ার সমস্যা দূর হওয়ায় পাশাপাশি বাড়তি খরচ গুনতে হচ্ছে না চাষিদের। তবে ফড়িয়া ব্যবসায়ীদের পাট গুদামজাতকরণের কারণে সাধারণ পাট চাষিরা যাতে আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত না হয় সেদিকে লক্ষ্য রেখে পাটের ন্যায্য দাম নিশ্চিত করতে সংশ্লিষ্টদের হস্তক্ষেপ কামনা করছে চাষিরা।

উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে, এবার পাটের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৬০০ হেক্টর। লক্ষ্যমাত্রা অতিক্রম করে আবাদ হয়েছে ৬৫৫ হেক্টর। তোষা জাতের পাটের আবাদ হয়েছে ৪৫০ হেক্টর এবং দেশি পাটের আবাদ হয়েছে ২০৫ হেক্টর। দেশি পাট উত্পাদন হবে ১ হাজার ৯৪৭ বেল, অপরদিকে তোষা পাট উত্পাদন হয়েছে ৪ হাজার ৬৫৭ বেল। উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের কৃষি কর্মকর্তা মোঃ শামীম জানান, গত বারের তুলনায় এবার পাটের বাম্পার ফলন হয়েছে। আর দাম ভাল পাওয়ায় পাট চাষে উত্সাহিত হচ্ছেন কৃষক। বাজার ঠিক থাকলে কৃষকেরা আর্থিকভাবে লাভবান হবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।