রবিবার, 22 মে 2016 12:34

কুষ্টিয়াতে চালু হয়েছে কৃষকদের স্কুল

দৈনিক ইত্তেফাক ।। কুষ্টিয়ার মিরপুরে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে কৃষকের স্কুল। এলাকার গরিব ও ক্ষুদ্র দিনমজুর চাষিরা এই স্কুলে শিক্ষা গ্রহণ করে। এদের বেশিরভাগই নিরক্ষর। শিক্ষা উপকরণ হিসাবে এখানে আছে খাতা, কলম, বই কিংবা কাঠ পেন্সিল। এই স্কুলে পাঁচ মাসে ২৫টি পরিবারের সদস্যদের হাতে কলমে কৃষি প্রযুক্তির ব্যবহার শেখানো হয়েছে। সকালে মাঠে বা গৃহস্থলির কাজ শেষে বিকেলে স্কুলে আসে কৃষকরা। এই মাঠ স্কুল থেকে প্রশিক্ষণ নিয়ে উপজেলার অনেক কৃষক এখন স্বাবলম্বী হয়েছে।  উপজেলার নওদাপাড়া গ্রামের কৃষক হারেজ আলী জানান, এই স্কুল থেকে শিখেছি কিভাবে কম জমিতে অধিক ফসল এবং কিভাবে রাসায়নিক সারের ব্যবহার কমিয়ে কীটনাশক ব্যবহার না করেও ভালো ফসল ফলানো যায়। প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত আসমা খাতুন জানান, কিভাবে হাঁস-মুরগি, ছাগল, ভেড়া ও গবাদিপশুর খামার করে সংসারের আয় বাড়ানো যায় তা এই স্কুল থেকে জেনেছি।

এ ব্যাপারে মিরপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা রমেশ চন্দ্র ঘোষ জানান, এই স্কুল থেকে মাঠ ফসল (ধান), বসতবাড়িতে বাগান (সবজি ও ফল), গরু, ছাগল, হাঁস-মুরগি, পুষ্টি, মাছ, কৃষক সংগঠন ও সামাজিক বিষয় সমূহের উপর পাঁচ মাস মেয়াদী প্রশিক্ষণ দেয়া হয়। প্রশিক্ষণ শেষে ২৫টি পরিবারের মাঝে সনদপত্র, আয় বর্ধনের জন্য দেড় হাজার টাকা ও পুরস্কার বিতরণ করা হয়। কুষ্টিয়া জেলা কৃষি সমপ্রসারণ অধিদফতরের উপ-পরিচালক কিংকর চন্দ্র দাস জানান, প্রতিটি স্কুলে কারিগরি সেশন, সমন্বিত কৃষি ও সামাজিক সেশন, সমস্যা ভিত্তিক কৃষি কিভাবে কাটিয়ে ওঠা, কৃষিকে কিভাবে শক্তিশালী, গতিশীল ও টেকসই করা যায় তা মাঠে গিয়ে শেখানো হয়। যাতে প্রশিক্ষণ প্রাপ্তরাই নতুনদের প্রশিক্ষণ দিতে পারেন। এতে আমাদের কৃষিতে আরো উন্নয়ন করা সম্ভব।