মঙ্গলবার, 24 মে 2016 12:29

ধান কাটা-মাড়াইয়ের আধুনিক যন্ত্র উদ্ভাবন করলেন টিপন

দৈনিক ইত্তেফাক || মদন উপজেলায় কৃষকের সন্তান মোস্তফা হোসেন টিপন আলোড়ন তুলেছেন ধান কাটা মাড়াই ও ওড়ানোর আধুনিক যন্ত্র উদ্ভাবন করে। তার প্রশংসা এখন গ্রামগঞ্জ ও হাট-বাজারে। উপজেলার কাইটাইল ইউনিয়নের পাচহার বরবাড়ী গ্রামের ওয়ার্কশপ মেকানিক্স মোস্তফা হোসেন টিপন(২৮)। তিনি গ্রামের স্কুলে প্রাথমিক জ্ঞান অর্জন করেছিলেন। সংসারে অভাব থাকায় উপজেলার জাহাঙ্গীরপুর সেন্টারে প্রথমে মেশিন মেরামতের কাজ করতেন। সেখানে আয় বেশি না হওয়ায় পরে একটি ওয়ার্কশপের দোকান দেন। ছোটবেলা থেকেই নতুন কিছু তৈরি করা ছিল তার নেশা। মেশিনের দোকান দেয়া থেকেই তিনি কীভাবে কৃষকরা সহজে ধান-কাটা, মাড়াই ও ওড়ার কাজ করতে পারে এ বিষয়ে চিন্তা করতে থাকেন।

উদ্ভাবক মোস্তফা হোসেন টিপন জানান, আমার এলাকায় বোরো মৌসুমে পানি এসে বেড়ি বাঁধ ভেঙে হাওরে পানি ঢুকে জমি তলিয়ে যায়। কিভাবে সহজে ধান-কাটা, মাড়াই ওড়ার কাজ করা যায় এ চিন্তা করে মেশিনটি তৈরি করেছি। মেশিন তৈরি করতে তার প্রায় ৬ লাখ টাকা লেগেছে। টিপনের তৈরি এ মেশিনটি ঢাকা ধান গবেষণা ইনস্টিটিউটের বিভাগীয় প্রধান আব্দুর রহমান, প্রকৌশলী বিজ্ঞানী বিধান বাবু ও প্রকৌশলী আকরাম সাহেব দেখে প্রশংসা করেছেন। ফতেপুর ইউনিয়নের কৃষক রেনু মিয়া, মাঘান ইউনিয়নের তৈফিক মিয়া, পৌরসভার বাড়ি ভাদেরার রবিউলসহ অনেক কৃষক জানান, এ মেশিন দিয়ে ধান কাটা ও মাড়াই করতে খরচ কম হয়েছে। শ্রমিক দিয়ে কাটলে এর চেয়ে দ্বিগুণ খরচ হতো। ঝামেলাও অনেক।

উপজেলা কৃষি অফিসার গোলাম রসুল জানান, টিপনের উদ্ভাবনী কম্বাইন্ড হার্ভেস্টার মেশিন দিয়ে এক একর জমির ধান কাটতে মাত্র ৪ হাজার টাকা খরচ হয়। যেখানে  এ এলাকায় বর্তমানে শ্রমিক দিয়ে এক একর জমির ধান কাটতে লাগে ১০ হাজার টাকা। তার এ মেশিন দিয়ে প্রতিদিন পাঁচ একর জমির ধান কাটা সম্ভব।